728 x 90
728 x 90
728 x 90
Advertisement
create a new WordPress Website

কাজিপুরের কৃতি সন্তান জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদারের সংক্ষিপ্ত জীবনী

কাজিপুরের কৃতি সন্তান জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদারের সংক্ষিপ্ত জীবনী

কাজিপুরের কৃতি সন্তান জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদারের সংক্ষিপ্ত জীবনী

এম এ মজিদ সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মোঃ জহুরুল ইসলাম তালুকদার সিরাজগঞ্জ জেলাধীন কাজিপুর থানার অন্তর্গত চর সিংড়াবাড়ী গ্রামে জন্ম গ্রহন করেন। তার প্রকৃত জন্ম তারিখ পহেলা অক্টোবর ১৯২০ সন এবং সার্টিফিকেট জন্ম তারিথ পহেলা অক্টোবর ১৯২২ সন। পিতার নাম মৌলভী মঈম বক্ স তালুকদার এবং তার দাদার নাম গয়েশ মাহমুদ তালুকদার। মাত্র ২ বছর বয়সে তার পিতা মারা যায় এবং মাতা মারা যায় ১৯৬৩ সনে। তার বড় ভাই ছিলেন হাজী দেরাছ উদ্দিন তালুকদার তিনি ১৯৭৬ সনে মৃত্যু বরণ করেন। জহুরুল ইসলাম তালুকদার কাজিপুর থানার সিংড়াবাড়ী গ্রামের পাঠশালাতে ১৯২৯ সন পর্যন্ত দ্বিতীয় শ্রেনী পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহন করেন – শিক্ষক ছিলেন (১) বাবু বশন্ত কুমার (গাদু পন্ডিত) ও (২) জনাব আখের আলী সরকার। কাজিপুর রানী দিনমনি ইংলিশ মিডল স্কুলে ৩য় শ্রেনী হইতে ষষ্ঠ শ্রেনী পযর্ন্ত (১৯৩০ – ১৯৩৩) লেখাপড়া কালীন শিক্ষক ছিলেন (১) বাবু অক্ষয় কুমার মিত্র (হেড মাষ্টার) (২) জনাব মনসুর সরকার – হেড পন্ডিত (৩) জনাব ছাবেদ হোসেন সরকার -সেকেন্ড মাষ্টার (৪) জনাব বিলায়েত হোসেন সরকার -সেকেন্ড পন্ডিত (৫) বাবু খিরোদ চন্দ্র হোড়- থার্ড মাষ্টার (৬) জনাব হাসান আলী সরকার -থার্ড পন্ডিত। তারপর সিরাজগঞ্জ বানোয়ারী লাল উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়ে ৭ম শ্রেনী (১৯৩৪ সন) হইতে দশম শ্রেণী (১৯৩৭ সন) পর্যন্ত অধ্যয়ন কালীন প্রধান শিক্ষক ছিলেন – বাবু শশী মোহন সরকার এবং আরবী শিক্ষক ছিলেন মৌলভী সিরাজুল হক এবং আবু নাজেম কাজেম রহমতী।
১৯৩৮ সনে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ম্যাট্রিকুলেশন পরীক্ষায় চার বিষয়ে লেটার এবং STAR সহ মাসে ১০ টাকা বৃত্তি পাইয়া প্রথম বিভাগে পাশ করেন। নবম ও দশম শ্রেণীতে পাঠরত অবস্থায় ঐ সময়ে স্কুলের ছাত্রাবাসে থাকা-খাওয়া বাবদ খরচ ছিল মাত্র তিন টাকা পঞ্চাশ পয়সা। ১৯৪০ সনে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে কলিকাতা বঙ্গবাসী কলেজ হইতে পদার্থ বিদ্যায় লেটার মার্ক এবং মাসে ১৫ টাকা বৃত্তি পাইয়া প্রথম বিভাগে এইচ এস সি পাশ করেন। ১৯৪২সনে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে কলিকাতা প্রেসিডেন্সী কলেজ হইতে বি, এস, সি অনার্স পরীক্ষায় মাসে ৩০ টাকা বৃত্তি পাইয়া পদার্থ বিদ্যায় অনার্স ডিগ্রী লাভ করেন। উক্ত সময় কালীন তিনি কলিকাতার বউ বাজারের নিকট ওয়েলিংটন ষ্ট্রীট এর টেলর মুসলিম হোষ্টেলে ছিলেন এবং মাসিক থাকা-খাওয়া খরচ ছিল মাত্র ৮ টাকা। বি, এস, সি পরীক্ষার ফলাফলের জন্য ১৯৪২ সনের জুলাই হইতে ডিসেম্বর মাস পযর্ন্ত মাসিক ৬২ টাকা বেতন তৎসংগে মহার্ঘ ভাতা ৯ টাকা সহ মাসিক ৭১ টাকা বেতনে ইছাপুর মেটাল এন্ড ষ্টীল ফ্যাক্টরিতে চাকুরী করেছন। ১৯৪৪ সনে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় হইতে ফলিত পদার্থ বিদ্যায় (Applied Physics) এম, এস, সি ডিগ্রী লাভ করেন।
উক্ত সময়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কারমাইকেল হোষ্টেলের মুসলিম ছাত্রাবাসে ছিলেন। এম, এস, সি পরীক্ষার পরে ১৯৪৪ সনের ১৪ই ডিসেম্বর হইতে ১৯৪৫ সনের ৩১শে ডিসেম্বর পযর্ন্ত ইন্ডিয়ান স্টোর্স ডিপার্টমেন্ট এর অধীনে ভারতের ছোট নাগপুর জেলার অন্তর্গত টাটা নগরীতে অবস্থিত Metallurgical Inspectorate এ মাসিক ১৫০ টাকা বেতন সংগে মহার্ঘ ভাতা ২৬ টাকা সহ মোট ১৭৬ টাকা বেতনে “টাটা আয়রন এন্ড ষ্টীল কোম্পানি, ইন্ডিয়ান ওয়্যার প্রোডাক্টস কোম্পানি, ইন্ডিয়ান কেবল কোম্পানি, ইন্ডিয়ান এগ্রিকালচারাল ইমপ্লিমেন্টস কোম্পানি প্রভৃতি কারখানার তৈরী মালামাল সরকারের পক্ষে পরিদর্শন করা এবং গ্রহণযোগ্য তৈরী মালামাল সার্টিফিকেট সহ পাশ করাই ছিল তার দায়িত্ব। ১৯৪৫ সনে টাটা নগরে চাকুরী কালীন সময়ে যুদ্ধ-পরবর্তী ভারত উন্নয়ন (Post war development of India) স্কীমের আওতায় আমেরিকাতে উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের জন্য নির্বাচিত হন কিন্তু তখন ২য় মহা যুদ্ধ শুরু হয়, তবে আমেরিকা জাপানের উপর এটম বোমা নিক্ষেপ করার ফলে প্রায় সাথে সাথেই ২য় মহা যুদ্ধ শেষ হয়ে যায়- এর পরিপ্রেক্ষিতে ভারতে আগত আমেরিকান সেনাবাহিনীর সমুদ্র পথে দেশে ফেরার হিড়িক পড়িয়া যায় বিধায় ১৯৪৬ সনের প্রথম দিকে আমেরিকা যাত্রা স্থগিত হয়ে যায়। এই সুযোগে তিনি ১৯৪৬ সনে কয়েক মাস স্থানীয় মেঘাই হাইস্কুলে অংক শিক্ষা দেওয়ার সুবাদে কাজিপুর থানার তদানীন্তন স্কুলগামী ছাত্রদের সাথে পরিচয় হয় এবং পরবর্তীতে এদেরকেই বিভিন্ন অফিস আদালতে দেখতে পান।
১৯৪৬ সনের শেষ দিকে কলিকাতার খিদিরপুর ডক হইতে আমেরিকার ১৯000 টন যুদ্ধ সেনাবাহী জাহাজ “ম্যারিন লিংকস” যোগে আমেরিকার উদ্দেশ্যে প্রথম সমুদ্র যাত্রা আরম্ভ করেন। বঙ্গোপসাগর পাড়ি দিয়া সিংগাপুর ও সুমাত্রা দ্বীপের মধ্যবর্তী মালাক্কা প্রণালী পার হইয়া ইন্দোচীন ও ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জের মাঝের চীন সাগর পার হইয়া দুই সপ্তাহের কম সময়ে হোয়াংহো নদী বন্দর সাংহাই এ তেল নেওয়ার জন্য জাহাজ ৩ দিন নোঙ্গর করিলে এতদিন জাহাজে আবদ্ধ থাকার ফলে কিছুটা টাটকা হওয়ার জন্য সাংহাই শহরে ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বাহির হইয়া দেখেন তখনকার যুদ্ধ বিধ্বস্ত সাংহাই শহরের অবস্থা খুবই শোচনীয়। দুই জন মাদ্রাজ প্রদেশ বাসী প্রশিক্ষণার্থী তার সহযাত্রী ছিল। সাংহাই শহর ঘুরে দেখার পর ক্ষুধার্ত হয়ে পড়লে তারা তিন জন ইন্ডিয়ান কারি শপ নামক একটি রেস্তোরাঁয় তিন প্লেট মুরগি এবং ভাত খাইয়া তাদেরকে ৩৯০০০ ডলার বিলের মুখোমুখি হতে হয়। তার মতে আজীবন মনে রাখার মতো এই সমস্যা সমাধান হয় মাত্র ১৬ আমেরিকান ডলারের বিনিময়ে। তখনকর যুদ্ধোত্তর চীন মুদ্রার এক্সচেঞ্জ/বিনিময় মুল্য ছিল আমেরিকান ১ ডলার সমান ২৫০০ চাইনিজ ডলার। সাংহাই নদী বন্দরে তিন দিন অবস্থানের পর প্রশান্ত মহাসাগর পাড়ি দেওয়ার শুরুতে জাপানের দক্ষিণে জহাজখানি প্রচণ্ড সামদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়ে এবং ৭ দিনের মতো ঝড়ের মধ্যেই চলিতে থাকে তারপর প্রশান্ত মহাসাগর একদম শান্ত হইয়া পড়িলে এই প্রশান্ত মহাসাগরেই আন্তর্জাতিক সীমারেখা পার হইয়া প্রায় এক সপ্তাহ শান্ত সমুদ্রের বুকে চলিয়া একদিন সন্ধ্যায় সান ফ্রান্সিসকো এর গোল্ডেন গেট ব্রিজ পার হইয়া উপ শহর বার্কলে (Barkley) এর ডকে নোঙ্গর করে।
তৎকালীন সময় সমুদ্র পথে এইভাবে আমেরিকা পৌঁছাইয়া ১৯৪৭ সনে আমেরিকার নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয় হইতে এম, এম, ই (মাষ্টার অব মেকানিক্যাল ইনজিনিয়ারিং) ডিগ্রী লাভ করেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের সময় তিনি নিউ ইয়র্ক সিটির থার্ড এভেনিউ এর পার্শ্বে ফরটি থার্ড স্ট্রীট ওয়াই,এম,সি তে থাকতেন। তিনি আমেরিকাতে Barnes Aerospace & Industrial Technology Company তে চাকুরী করেছন। এরপর তিনি পেশাগত উচ্চ শিক্ষার জন্য যুক্তরাজ্য (লন্ডনে) যান। চাকুরী কালীন সময়ে এম,আই,ই (পাকিস্তান ) এবং এফ,আই,ই (বাংলাদেশ ) ডিগ্রী অর্জন করেন। পাকিস্তান অস্ত্র কারখানার ফিলিং সুপারিনটেনডেন্ট হিসাবে যোগদানের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু হয়। ১৯৬০-৬৩ সনে তিনি পাকিস্তান অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরীতে ফিলিং ফ্যাক্টরী ম্যানেজার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৩-৬৬ সনে তিনি উক্ত অস্ত্র কারখানায় সুপারিনটেনডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব কালীন সময়ে পাকিস্তান এবং ভারতের মধ্যে ১৯৬৫ সনে এক ভয়াবহ ঐতিহাসিক যুদ্ধ শুরু হলে ঐ যুদ্ধে অস্ত্র তৈরীর বিশেষ পারদর্শিতার জন্য তিনি তৎকালীন পাক সরকার কর্তৃক তমঘা-ই-কায়েদে আজম উপাধিতে ভূষিত হন। জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদারের প্রস্তাব মতে ঢাকার অদূরে গাজীপুর জেলার জয়দেবপুরে বাংলাদেশ অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরী সমরাস্ত্র কারখানা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং তিনি প্রজেক্ট ডিরেক্টর ছিলেন। ১৯৬৯-৭১ সময় কালীন তিনি উক্ত অস্ত্র কারখানার চীফ সুপারিনটেনডেন্ট ছিলেন এবং ১৯৭১-৭২ সময় কালীন তিনি বাংলাদেশে মেশিন টুলস ফ্যাক্টরীতে জেনারেল ম্যানেজার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২-৭৩ সময়কালীন তিনি বাংলাদেশ সমরাস্ত্র কারখানার ডিরেক্টর ছিলেন। তিনি দূতপুলের (Pool of Ambassador) সদস্য ছিলেন। ১৯৭৯ সনে জহুরুল ইসলাম তালুকদার বর্তমান সিরাজগঞ্জ-১(কাজিপুর) আসন হতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য (এম.পি) নির্বাচিত হয়েছিলেন।
পরে তিনি প্রেসিডেন্ট জেনারেল জিয়াউর রহমানের নের্তৃত্বাধীন বি.এন.পি. তে যোগদান করেন। জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদার সক্রিয় রাজনীতি করেননি সত্য কিন্তু তিনি চাইতেন অলস হাতকে কর্মীর হাতে রূপান্তর করতে। এই উদ্দেশ্যে তিনি ১৯৯৬ সনে তার নিজ নামের ইংরেজী আদ্যক্ষরের সমন্বয়ে জহুরুল এর “Z” ইসলামের “I” ও তালুকদারের “TA” অর্থাৎ “ZITA” যাহা বাংলায় সংক্ষেপে “জিতা” নামকরণে তিনি “জিতা ফাউন্ডেশন” নামক একটি সমাজসেবা মূলক প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেন। যাহার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির উল ইসলাম তালুকদার এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর: সিরাজ/৩৪৮। এই সমাজ সেবামূলক প্রতিষ্ঠানটির প্রধান লক্ষ্য হলো শিক্ষামূলক বৃত্তি এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নমূলক অনুদান, ধর্মীয় শিক্ষা ও অনুদান এবং বেকার যুবকদের অত্নকর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরী, গরীব ও অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের দান, বিনা সুদে ঋণদানসহ মাছ-মুরগী এবং বিভিন্ন প্রকার আত্মকর্মসংস্থান মূলক কাজের ব্যবস্থা করা। এই জিতা ফাউন্ডেশন কে চিরস্থায়ী ভাবে অর্থ যোগানের লক্ষ্যে জনাব জহুরুল ইসলাম তালুকদার তার ঢাকাস্থ মোহাম্মদপুরের নিজের অর্জিত বাড়ী জিতা ফাউন্ডেশনের অনুকূলে বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসক কার্য্যালয়ে ১০.৫০ শতাংশ জমি চিরস্থায়ীভাবে তালিকাভুক্ত করেন যাহার তালিকাভুক্ত ই. সি নম্বর ১৯১১৬। তার পৈতৃক সূত্রে পাওয়া কাজিপুর থানার চরসিংড়াবাড়ী ও পাটাগাঁও মৌজায় প্রায় ৫০ বিঘা জমি ফাউন্ডেশনের নামে ৩২৯/২০০০ দলিল মূলে দান করেছেন। বিগত ১৭-০১-২০০৬ ইং তরিখে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

Posts Carousel

Latest Posts

Top Authors

Most Commented

Featured Videos

ক্যালেন্ডার

September 2021
F S S M T W T
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930