728 x 90
728 x 90
728 x 90
Advertisement
create a new WordPress Website

শিবগঞ্জে ৩০ বছর পর কবলাকৃত জমির দখল পেলেন জাহাঙ্গীর আলম

শিবগঞ্জে ৩০ বছর পর কবলাকৃত জমির দখল পেলেন জাহাঙ্গীর আলম

৩০ বছর পর কোবলাকৃত জমির দখল পেলেন

মোঃ জান্নাতুল নাঈম শিবগঞ্জ (বগুড়া) বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের বেড়াবালা গ্রামের ময়েন উদ্দিন মন্ডল এর ছেলে কৃষক জাহাঙ্গীর আলম প্রায় ৩০ বছর পর এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তির সহযোগিতায় তার কবলাকৃত জমি ফিরে পেয়েছেন। জানা যায়, উথলী রথবাড়ী এলাকার নিঃস্তান শ্রী রঞ্জন এর নিকট থেকে ১৯৯৩ সালে জমিটি জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার ভাই মুছা মিয়ার নামে বেড়াবালা মৌজার – ১৫৫ জেএল নং এর ১৭ শতক জমি কোবলা করে রেজিঃ করে নেন। এর পূর্বে উথলী রথবাড়ী এলাকার লালু আকন্দের ছেলে প্রভাবশালী মেহেদুল ইসলাম আকন্দ জমির মালিক রঞ্জন জীবিত থাকাকালীন সময় বর্গা নিয়ে চাষাবাদ করে খেতেন। একপর্যায়ে নিঃস্তান রঞ্জন, মৃত্যুর পর জমিটি এনিমি প্রোপ্রাইটির হিসাবে তালিকা ভুক্ত হয়। এর প্রেক্ষিতে জমিরি কোবলাদার ২০১৪ সালে বিজ্ঞ আদালতে মামলা করে এনিমি প্রোপ্রাইটি থেকে জমিটি তালিকা ভুক্ত না মুঞ্জুর করে ডিগ্রি প্রাপ্ত হন। এর পর ২০১৮ সালে জমিটি জাহাঙ্গীর ও তার ভাই মুছার নামে খারিজ করে নিঃকন্ঠক মালিকানা প্রাপ্ত হন। কিন্তু এলাকার প্রভাবশালী মেহেদুল ইসলাম আকন্দ এনিমি প্রোপ্রাইটির সূত্র ধরে জমিটি জবর দখল করে তার নিয়ন্ত্রণে রেখে চাষাবাদ করছিলেন। এ ব্যাপারে জাহাঙ্গীর আলম বিভিন্ন দপ্তরে ও থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে প্রতিপক্ষ মেহেদুল ইসলাম আকন্দ কোন কাগজপত্র দেখাতে না পারায় জমিটি জাহাঙ্গীরের সঠিক কাগজ পত্র প্রদর্শন পূর্বক নিঃকন্ঠক মালিকানা প্রমাণ করেন। একপর্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গ্রাম্যশালীশের মাধ্যমে জমিটি তার মালিকানাধীন হওয়ায় দলিল মূলে জমিটি বুঝিয়ে দেন। তা স্বত্বেও সে জমিটি মূল মালিককে বুঝিয়ে না দিয়ে জবর দখল করে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যান। একপর্যায়ে গত ১৯ জুন শনিবার দূপুর ২টায় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি ও গ্রামবাসী জমিটি দখল মুক্ত করে তাকে বুঁঝিয়ে দেন। এর পর সে জমিটিতে বৃক্ষরোপন করে প্রায় ৩০ বছর পর জমিটির মালিকানা বুঝিয়ে পায়।

Posts Carousel

Latest Posts

Top Authors

Most Commented

Featured Videos

ক্যালেন্ডার

July 2021
F S S M T W T
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031